এসএসসিতে রসায়নে ৪৮ নম্বর পেয়েও এক পরীক্ষার্থী ফেল যে কারণে

২০১৭ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় রেশমী নামে বিজ্ঞান বিভাগের এক পরীক্ষার্থী রসায়নে ৪৮ নম্বর পেয়েও ফেল করেছে।  নগরীর গুলজার বেগম সিটি করপোরেশন মুসলিম গার্লস স্কুল থেকে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী রেশমী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল।

বৃহস্পতিবার (৪ মে) চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনলাইনে নম্বরসহ প্রকাশিত ফলাফলে বিষয়টি উঠে এসেছে।

ফলাফলে দেখা যায়, বাংলা, ইংরেজি, গণিতসহ অন্যান্য বিষয়ে এ পরীক্ষার্থীর বিভিন্ন গ্রেড পয়েন্টসহ প্রাপ্তনম্বর যথার্থ থাকলেও রসায়ন বিষয়ে ৪৮ নম্বর পেয়েও এফ (ফেল) উল্লেখ রয়েছে।

যদিও পাবলিক পরীক্ষার নির্দেশনা অনুযায়ী ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ৩৩ পেলে যেকোন পরীক্ষার্থী কৃতকার্য হিসেবে গণ্য হবে।  সেখানে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের তত্ত্বাবধানে প্রকাশিত এসএসসি’র ফলাফলে ৪৮ নম্বর পেয়েও এ শিক্ষার্থী ফেল করেছে।

এই শিক্ষার্থীর অভিভাবক সঞ্জয় পাল ক্ষোভ প্রকাশ করে বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমার মেয়ের মনোবলই ভেঙে গেছে।  তার সব পরীক্ষা ভাল হয়েছে।  ফলাফল প্রকাশের দিন সকালে হাসিমুখে থাকলেও দুপুরের দিকে রেজাল্ট পাওয়ার পর সে কান্নায় ভেঙে পড়ে।  অনলাইনে তার ফলাফলের কপি হাতে পাওয়ার পর দেখলাম রসায়নে আমার মেয়ে ৪৮ নম্বর পেয়েছে ও পাশে ফেল লেখা রয়েছে।  ৩৩ নম্বর পেলে তো পাস, কিন্তু ৪৮ নম্বর পেয়েও আমার মেয়ের ফেল করেছে কেন বুঝতে পারছি না।  ’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, ‘৪৮ নম্বর পেয়ে ফেল করেছে, এতে বিস্মিত হওয়ার কিছু নেই।  ব্যবহারিক ছাড়া বিষয়গুলোতে লিখিত ও নৈর্ব্যত্তিক দুইটিতে আলাদাভাবে পাস করতে হয়।  আর ব্যবহারিকসহ বিষয়গুলোতে ৩টিতে আলাদাভাবে পাস করতে হয়।

ওই পরীক্ষার্থী হয়তো নৈর্ব্যত্তিক, ব্যবহারিকে আলাদাভাবে পাস করেছে কিন্তু লিখিততে পাস করেনি।  নতুবা লিখিত, ব্যবহারিকে পাস করেছে কিন্তু নৈর্ব্যত্তিকে পাস করেনি।  স্পষ্ট নির্দেশনা আছে অবশ্যই আলাদাভাবে ৩টিতেই পাস করতে হবে।  সেক্ষেত্রে অনেকে ৩৩ এর চেয়ে অধিক নম্বর পেয়েও ফেল করতে পারে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*